মুক্তিযুদ্ধের সত্যি ঘটনা অবলম্বনে নির্মিত হচ্ছে পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচিত্র ‘জ্যাঁ কুয়ে ১৯৭১’

১৯৭১ সালের ৩ ডিসেম্বর বেলা ১১টা ৫৫ মিনিটে ফ্রান্সের প্যারিসের আর্লি বিমানবন্দরে পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইনসের (পিআইএ) একটি বিমান ছিনতাই করেন জ্যাঁ কুয়ে নামে ফরাসি এক তরুণ।

আজ থেকে প্রায় ৫০ বছর আগে পাকিস্তানের সেই বিমান ছিনতাই করে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের ঐতিহাসিক বন্ধুতে পরিণত হন। বিমানটি ছিনতাই করার উদ্দেশ্য ছিল যুদ্ধের সময় পূর্ব পাকিস্তান তথা বাংলাদেশের শরণার্থী শিশুদের চিকিৎসার জন্যে ২০ টন ওষুধ ওই বিমানে তুলে দিতে হবে, তাহলেই কেবল মুক্তি পাবে বিমানের সব যাত্রী। এমন একজন স্বাধীনতাকামী মানুষ ও সত্যি ঘটনা অবলম্বন করে এবার বাংলাদেশে নির্মিত হচ্ছে পূর্ণদৈর্ঘ্য ‘জ্যাঁ কুয়ে ১৯৭১।’

এটি নির্মাণ করছেন ‘ভুবন মাঝি’ ও ‘গণ্ডি’ নির্মাতা ফাখরুল আরেফীন খান। এটি মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে প্রথম আন্তর্জাতিক সিনেমা। ‘জ্যাঁ কুয়ে ১৯৭১’ সিনেমাটি যৌথভাবে প্রযোজনা করেছেন মোহাম্মাদ ফরিদ খান ও ফাখরুল আরেফীন খান। গত ১৮ সেপ্টেম্বর সিনেমাটির দৃশ্যধারণ শুরু করেন নির্মাতা। জানা গেছে, দুই দফায় প্রায় এক মাসের দৃশ্যধারণে ছবির চিত্রায়ণ শেষ হয়। নির্মাতা এখন ছবির এডিটিং ও ডাবিং’র কাজে ব্যস্ত। জ্যা কুয়ে ১৯৭১ ছবির নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছেন পশ্চিমবঙ্গের সৌরভ শুভ্র দাশ। এছাড়াও অভিনয় করছেন সব্যসাচী চক্রবতী, ইন্দ্রোনীলসহ আরও প্রায় ৩৬ জন অভিনয়শিল্পী।

আরেফীন খান বলেন, ‘১৯৭১ সালের ৩ ডিসেম্বর প্যারিসের আর্লি বিমানবন্দরে বাংলাদেশের জন্য জ্যা কুয়ে পাকিস্তানের পিআইএ-৭১১ বিমানটি যাত্রীসহ ছিনতাই করেছিলেন। সেদিন কুয়ে কেমন করে কোন ভাবনা থেকে বিমানটি ছিনতাই করলেন। কী ঘটেছিল বিমানের ভেতরে। পুরো বিষয়টি আমরা পর্দায় তুলে ধরতে চেয়েছি। আর সেই লক্ষ নিয়েই আমরা এরইমধ্যে সিনেমার শুটিং পরবর্তী কাজগুলো করছি।’

ফাখরুল আরেফীন খান আরও বলেন, ‘এটা আমাদের গড়াই ফিল্মসের প্রথম আন্তর্জাতিক কাজ। মুক্তিযুদ্ধের সময় দেশের বিপদে পড়া মানুষদের সাহায্য করার জন্যই জ্যা কুয়ে বিমান ছিনতাই করেছিলেন। যদিও কর্মকর্তাদের চালাকির কারণে তিনি আটকা পড়েছিলেন সেদিন। কিন্তু ঠিকই তার শর্ত ধরে ২০ টন ওষুধ কলকাতায় এসেছিল। আশা করছি বাংলাদেশের এই পরম বন্ধুকে নিয়ে নির্মিত সিনেমাটি দর্শকদের কাছে ভালো লাগবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *